শ্বশুরবাড়ি থেকে পেলেন না ইফতারি, বউকে দিলেন তা’লাক

শ্বশুরবাড়ি থেকে রমজান মাসে ইফতারি পাওয়ার আশা করেছিলেন। কিন্তু প্রত্যাশা থাকলেও প্রাপ্তি ঘটেনি। আর এর জেরে নবজাতকসহ বউকে দিয়েছেন তালাক। বুধবার রাতে সিলেটের জকিগঞ্জের কালিগঞ্জ উপজেলার মানিকপুর ইউপির বাল্লাগ্রামে ঘটেছে এই ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মানিকপুর ইউপির বাল্লা গ্রামের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে জাকারিয়া আহমদ। তিনি শ্বশুরবাড়ি থেকে ইফতারি না পেয়ে নবজাতকসহ বউকে তালাক দিয়েছেন। অমানবিক এমন কান্ডে পুরো উপজেলা জুড়ে চলছে বিতর্ক। ঘটনাটি চরম অমানবিক বলে অনেকেই মন্তব্য করেছেন।

মানিকপুর ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল কাদির এ বিষয়ে বলেন, ঘটনাটি নিয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকালে জাকারিয়া আহমদের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং ঘটনার বিস্তারিত জানতে ইউপি কার্যালয়ে নিয়ে এসেছিলেন।

জাকারিয়া প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে তালাকের ঘটনা ঘটেছে। বেশ কয়েকদিন থেকে সংসারে নানা বিষয় নিয়ে কলহ চলছে। পারিবারিক মতবিরোধে তালাক দিয়েছেন স্ত্রী। শ্বশুরবাড়ির লোকজন এখন আসল ঘটনাকে আড়াল করে ‘ইফতারি না পেয়ে তালাক হয়েছে’ বলে রটনা করছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমী আক্তার জানান, ঘটনাটি তিনি জানেন না। যদি এ রকম অমানবিক ঘটনা

ঘটে থাকে তাহলে ওই মহিলা পারিবারিক আদালতে বিচার প্রার্থী হোক। স্থানীয়ভাবে জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ করা উচিত।

তিনি আরো বলেন, মুখে তালাক বললেই শুধু তালাক হয় না। সমাজের সকল মানুষ সচেতন হতে হবে। এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেবেন।